fbpx

বুধবার ২৭শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১১ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম
শিরোনাম

ফুলবাড়ীতে বাড়ছে জ্বর-সর্দির প্রকোপ

শনিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১
36 ভিউ
ফুলবাড়ীতে বাড়ছে জ্বর-সর্দির প্রকোপ

মোঃ মিজানুর রহমান, ফুলবাড়ী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি:

দেশের উত্তরে বাংলাদেশ-ভারত সীমান্তঘেষা জেলা কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে অস্বাভাবিক হারে জ্বর সর্দির প্রকোপ দেখা দিয়েছে।ফলে উপজেলার ৬ টি ইউনিয়নের প্রায় প্রতিটি পরিবারে জ্বর-সর্দির প্রকোপ দেখা দেওয়ায় অভিভাবকরা চরম উদ্বিগ্ন।

সারাদেশের মতো এ উপজেলায় করোনা সংক্রমণ কমলেও গত এক সপ্তাহ ধরে প্রতিটি পরিবারে শিশু- বয়স্কদের মাঝে ব্যাপক জ্বর-সর্দির প্রকোপ বৃদ্ধি পাওয়ায় সাধারণ মানুষের মাঝে আতঙ্ক বিরাজ করছে। এ দিকে গত এক সপ্তাহের ব্যবধানে ফুলবাড়ী হাসপাতালে বিভিন্ন বয়সের ১৭ জন জ্বরের রোগী ভর্তি হয়ে চিকিৎসা সেবা নিয়েছেন।

এছাড়াও উপজেলার ৬ টি ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকায় খোঁজ- খবর নিয়ে জানা গেছে, কমপক্ষে দুই থেকে তিন শতাধিক শিশু-বৃদ্ধসহ বিভিন্ন বয়সের মানুষ জ্বর- সর্দি আক্রান্ত রোগীরা গ্রামের পল্লী চিকিৎসকদের কাছে চিকিৎসা নিচ্ছে।

এ দিকে বৃহস্পতিবার সকালে ফুলবাড়ী হাসপালে গিয়ে দেখা গেছে ,বিভিন্ন বয়সের কয়েকজন জ্বরের রোগী ভর্তি হয়ে চিকিৎসা সেবা নিচ্ছেন। হাসপাতালের জরুরী বিভাগের তথ্য অনুযায়ী গত এক সপ্তাহে ফুলবাড়ী হাসপাতালে ১৭ জ্বরের রোগী ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নিয়েছেন।

বর্তমানে ৬ জন জ্বরের রোগী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছে বলে জরুরী বিভাগ জানিয়েছেন। হাসপাতালে ভর্তি জ্বরে আক্রান্ত ব্যক্তিরা হলেন, কবির মামুদ এলাকার গোলাম মোস্তফা (৬৫), একই এলাকার সাদিয়া আক্তার শাম্মী (৫), চন্দ্রখানা এলাকার শরিয়ত আলী (৫৫), পানিমাছকুটি এলাকার ৫ম শ্রেণীর শিক্ষার্থী তুলি খাতুনসহ ৬ জন হাসপাতালে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা সেবা নিচ্ছেন।

জ্বরে আক্রান্ত কবির মামুদ এলাকার গোলাম মোস্তফা (৬৫) জানান, গত এক মাস ধওে জ্বরে ভুগছেন। এতোদিন বাড়ীতে চিকিৎসা নিয়েও জ্বর নিয়ন্ত্রণ না হওয়ার গত পাঁচ দিন আগেই হাসপাতালে ভর্তি হন।

বিভিন্ন পরীক্ষা- নিরীক্ষা কওে তার টাইফয়েড ধরা পড়েছে। বর্তমানে তিনি কিছুটা সুস্থ রোধ করছেন। একই এলাকার জ্বরে আক্রান্ত সাদিয়া আক্তার শাম্মীর বাবা জানান, তার মেয়ের গত কয়েকদিন ধরে জ্বর-সর্দি। গত সোমবার গভীর রাতে জ্বর-১০২ ডিগ্রী তাপমাত্রা দেখা দেওয়ায় সেই রাতেই তার মেয়েকে হাসপাতালে ভর্তি করেন। এখন তার মেয়ের কিছুটা জ্বর নিয়ন্ত্রণ হয়েছে বলে তিনি জানান।

উপজেলার চন্দ্রখানা গ্রামের কৃষ্ণ রঞ্জন রায় জানান, তার মেয়ে চারদিন থেকে জ্বরে আক্রান্ত। তিনি তার মেয়েকে হাসপাতলে নিয়ে না আসলেও এমবিএিস ডাক্তারের পরামর্শে চিকিৎসা সেবা নিচ্ছেন বলে তিনি জানান। তিনি আরও জানান শুধু তার মেয়ে জ্বরে আক্রান্ত নন। তার এলাকায় প্রতিটি পরিবারে কম বেশি দুই থেকে তিন জন জ্বর- সর্দিতে আক্রান্ত। বালারহাট বাজারের পল্লী চিকিৎসক ইয়াকুব আলী ও মিঠুন চন্দ্র রায় জানান, বর্তমানে তার এলাকার অধিকাংশ পরিবারে জ্বর,সর্দির প্রকোপ দেখা দিয়েছে।

গত এক সপ্তাহে শিশু-বৃদ্ধসহ বিভিন্ন বয়সের প্রায় শতাধিক জ্বরে আক্রান্ত রোগীর চিকিৎসা সেবা দিয়েছেন বলে তারা জানান। বিষয়টি উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগকে জানিয়েছেন। তারা আরও জানান জ্বরের প্রকোপ দেখা দেওয়ায় ফার্মেসি গুলোতে ওষুধ সংকট রয়েছেও বলে জানান তারা।

এ ব্যাপারে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার-পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আবুহেনা মোস্তফা কামাল জানান, সারাদেশের মতো এ উপজেলায়ও জ্বরের প্রকোপ বৃদ্ধি পাওয়ায় বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, এতে ভয়ের কিছু নেই। সাথে টাইফয়েডের প্রভাব পড়বে না বলে তিনি জানান। বাড়ীতে থাকা রোগীর জ্বর বৃদ্ধি পেলে তাৎক্ষনিক ফুলবাড়ী হাসপাতালে এসে চিকিৎসা সেবার জন্য পরামর্শ দেন তিনি।

Facebook Comments Box
advertisement

Posted ৯:০০ অপরাহ্ণ | শনিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১

dainikjanatarkantha |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

এ বিভাগের আরও খবর

পত্রিকার প্রতিষ্ঠা ঃ জাকারিয়া হোসেন জোসেফ 

সম্পাদক মণ্ডলীর সভাপতি ঃ কুলেন্দু শেখর দাস তালুকদার

উপদেষ্টা সম্পাদক ঃ ইয়াহিয়া চৌধুরী

সম্পাদক ঃ মাইদুল মিয়া মাইদুল

বার্তা সম্পাদক ঃ উমেদ আলী

সহ বার্তা সম্পাদক ঃ সাজু আহমদ

সহ বার্তাঃ সম্পাদক ঃ সুলেমান হোসেন রুবেল

সহ বার্তা সম্পাদক ঃ মোঃআমির হুসাইন 

প্রচার সম্পাদক ঃ ইদু খান

উপদেষ্টা পরিষদ ঃ মোঃশহিদুল্লাহ,আবাব মিয়া, হারুন মিয়া, মুজিবুর রহমান তোতা, মোছাব্বির হোসেন জুনেদ, জিহাদুল হক জিহাদ, সাব্বির খান, মাওঃ আকবর আলী, মমতাজুল কোরেশি, শেখ গোলাপ মিয়া, নিজাম উদ্দিন।

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার এর তথ্য মন্ত্রণালয়ের বিধি মোতাবেক নিবন্ধনের জন্য আবেদিত।
দৈনিক জনতার কণ্ঠ সম্পাদক ও প্রকাশক কর্তৃক .. থেকে প্রকাশিত।
%d bloggers like this: