fbpx

বুধবার ২৭শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১১ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম
শিরোনাম

চীনের সঙ্গে স্নায়ুযুদ্ধ চান না বাইডেন

বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১
42 ভিউ
চীনের সঙ্গে স্নায়ুযুদ্ধ চান না বাইডেন

চীনের সঙ্গে কোনো ধরনের স্নায়ুযুদ্ধে জড়াতে চায় না যুক্তরাষ্ট্র। স্থানীয় সময় গতকাল মঙ্গলবার যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে দেওয়া ভাষণে এ কথা বলেন। জাতিসংঘ মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস এ দুই পরাশক্তির মধ্যে স্নায়ুযুদ্ধের আশঙ্কা প্রকাশের পর এমন বার্তা দিলেন তিনি। অকাস চুক্তি নিয়ে বিশ্বজুড়ে আলোচনা-সমালোচনার মধ্যে এ সভায় বাইডেন বলেন, স্নায়ুযুদ্ধ নয়, বিশ্বকে নেতৃত্ব দিতে চায় যুক্তরাষ্ট্র। খবর এএফপি ও সিএনএনের।

অকাস চুক্তি নিয়ে ফ্রান্সের সঙ্গে বিরোধ সত্ত্বেও জাতিসংঘের ভাষণে বিশ্বজুড়ে গণতন্ত্র ও জোট সমুন্নত করতে কাজ করার প্রতিশ্রুতি দেন বাইডেন। উদীয়মান ও কর্তৃত্ববাদী চীনকে একুশ শতকের সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ হিসেবে চিহ্নিত করা হলেও এ ভাষণে বাইডেন বলেন, ‘আমরা কোনো বিভাজন চাই না। আমরা নতুন স্নায়ুযুদ্ধ বা বিশ্ব বিভিন্ন ব্লকে ভাগ হোক- তা চাই না।’

তিনি আরও বলেন, বিভিন্ন ইস্যুতে চরম মতবিরোধ সত্ত্বেও চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় ও শান্তিপূর্ণ সমাধানে যে কোনো জাতির সঙ্গে কাজ করতে প্রস্তুত রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব নেওয়ার পর জো বাইডেন প্রথমবারের মতো জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে এ ভাষণ দিলেন। এ ভাষণে চীনের নাম না উল্লেখ করে জিনজিয়াংয়ের উইঘুর সম্প্রদায়ের ওপর মানবাধিকার লঙ্ঘনের বিষয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেন তিনি। পরে করোনা মোকাবিলায় আজ বিশ্বনেতাদের ভার্চুয়াল বৈঠক আহ্বান করেছেন বাইডেন। আশা করা হচ্ছে, এতে করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে অতিরিক্ত প্রতিশ্রুতি দেবে বিশ্ব সম্প্রদায়।

এ অধিবেশনে যোগ দিতে স্থানীয় সময় সোমবার নিউইয়র্ক যান বাইডেন। এরপর জাতিসংঘ সদর দপ্তরে সংস্থার প্রধান আন্তোনিও গুতেরেসের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। সমন্বিতভাবে বিশ্বকে শান্তি-সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে নেওয়ার জন্য বাইডেন জাতিসংঘ মহাসচিবকে যুক্তরাষ্ট্রের সম্ভাব্য সমর্থনের ব্যাপারে আশ্বাস দেন।

জাতিসংঘ মহাসচিবের সঙ্গে সাক্ষাতের সময় সংক্ষিপ্ত বক্তৃতায় প্রেসিডেন্ট বাইডেন বলেন, বিশ্বের উন্নয়ন, শান্তি, নিরাপত্তার জন্য মহামারি করোনা ও জলবায়ুর পরিবর্তন বড় হুমকি হয়ে দাঁড়িয়েছে। এ অবস্থা থেকে উত্তরণের জন্য যুক্তরাষ্ট্র তার প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী বিশ্বের পাশে থাকবে।

এর আগে যুক্তরাষ্ট্রের এক কর্মকর্তা বলেন, বিশ্বকে বিভিন্ন ব্লকে ভাগ করতে পারে- এমন নতুন স্নায়ুযুদ্ধে বিশ্বাস করেন না বাইডেন। তিনি প্রাণশক্তিসম্পন্ন, তীব্র ও সুশৃঙ্খল প্রতিযোগিতায় বিশ্বাস করেন।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টের ভাষণের আগের দিন জাতিসংঘপ্রধান চীন ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে স্নায়ুযুদ্ধের আশঙ্কা প্রকাশ করেন। এ জন্য তাদের সতর্ক করেন। এমন প্রেক্ষাপটে ভাষণে সংযত দেখান বাইডেন।

প্রেসিডেন্ট বাইডেন ক্ষমতায় এসে রাশিয়া ও চীনের সঙ্গে প্রবল প্রতিযোগিতায় লিপ্ত হন। এতে চীনের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের সম্পর্ক চরম বিরোধপূর্ণ হয়ে ওঠে। এসব কারণে বিশ্ব নেতৃত্বে যুক্তরাষ্ট্রের ফিরে আসার বিষয়টি চ্যালেঞ্জের মুখে পড়েছে। এ অবস্থায় যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের মধ্যে ভিন্ন এক ঠান্ডাযুদ্ধের আশঙ্কা করছেন রাজনৈতিক বিশ্নেষকরা। এরই মধ্যে অস্ট্রেলিয়া ও যুক্তরাজ্যের সঙ্গে চুক্তি করে ফ্রান্সসহ ইইউর রোষানলে পড়েছেন বাইডেন। এমন পরিস্থিতিতে এই অকাস চুক্তি বিশ্বমঞ্চে বাইডেনকে আরও ঝুঁকির মুখে ফেলেছে।

এমন প্রেক্ষাপটে বাইডেন জাতিসংঘে ভাষণে যুক্তরাষ্ট্রের বিশ্ব নেতৃত্ব সুদৃঢ় করার বার্তা দেন।

এর আগে সিএনএন জানায়, বাইডেন সাধারণ পরিষদে যোগ দিয়ে বিশ্বনেতাদের মন জয় করার চেষ্টা করবেন।

হোয়াইট হাউসের প্রেস সেক্রেটারি জেন সাকি বলেছেন, নানা বিষয়ে বিভিন্ন দেশের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের মতপার্থক্য থাকতেই পারে। আবার যুক্তরাষ্ট্রের ব্যাপারেও অন্যান্য দেশের এমন অবস্থান রয়েছে। তবে শেষ পর্যন্ত বড় কথা হলো, এসব বিরোধকে পাশে সরিয়ে রেখে বিশ্বের দেশগুলোর সঙ্গে সম্পর্কের উন্নতির উদ্যোগের কথাই প্রেসিডেন্ট বাইডেন জাতিসংঘে দেওয়া তার প্রথম ভাষণে প্রাধান্য দেন।

এ ভাষণে জলবায়ু সংকট মোকাবিলায়ও বাইডেন গুরুত্বপূর্ণ বার্তা দেন বলে জানিয়েছেন জাতিসংঘের এক কর্মকর্তা। তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট বাইডেন জলবায়ু সংকটে অভিযোজন করতে দরিদ্র দেশগুলোর জন্য ১০০ বিলিয়ন ডলারের তহবিলের বিষয়ে নতুন ঘোষণা দিয়েছেন।

প্যারিস সম্মেলনের আগে ২০২০ থেকে ২০২৫ সাল পর্যন্ত- এ পাঁচ বছরের জন্য ১০০ বিলিয়ন ডলারের জলবায়ু তহবিল ঘোষণা করা হয়েছিল। তবে এখনও তাতে ২০ বিলিয়ন ডলারের ঘাটতি রয়েছে।

ভাষণের আগে জাতিসংঘের এক কর্মকর্তা বলেন, ‘আমরা যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধিদের কাছ থেকে জেনেছি যে কিছু ভালো খবর আসন্ন। এখনও বিস্তারিত জানা যায়নি। তবে এটা ওই ১০০ বিলিয়ন ডলারের তহবিল পূর্ণ করতে সহায়তা করবে।’

প্রেসিডেন্ট বাইডেনের নিউইয়র্কে যাওয়ার আগে এক বিবৃতিতে ইউরোপীয় ইউনিয়নের কাউন্সিল প্রেসিডেন্ট চার্লস মাইকেল যুক্তরাষ্ট্রের বর্তমান প্রশাসনের সমালোচনা করেছেন। তিনি বলেছেন, ইন্দো-প্যাসিফিক রাজনীতিতে ইউরোপকে এড়িয়ে যাচ্ছে ওয়াশিংটন। আফগানিস্তান থেকে তোড়জোড় করে যুক্তরাষ্ট্রের সেনা প্রত্যাহার ও অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে চুক্তি ট্রান্স-আটলান্টিক জোটের মধ্যকার স্বচ্ছতা ও বিশ্বস্ততার অন্তরায়।

Facebook Comments Box
advertisement

Posted ১২:১৬ অপরাহ্ণ | বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১

dainikjanatarkantha |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

এ বিভাগের আরও খবর

পত্রিকার প্রতিষ্ঠা ঃ জাকারিয়া হোসেন জোসেফ 

সম্পাদক মণ্ডলীর সভাপতি ঃ কুলেন্দু শেখর দাস তালুকদার

উপদেষ্টা সম্পাদক ঃ ইয়াহিয়া চৌধুরী

সম্পাদক ঃ মাইদুল মিয়া মাইদুল

বার্তা সম্পাদক ঃ উমেদ আলী

সহ বার্তা সম্পাদক ঃ সাজু আহমদ

সহ বার্তাঃ সম্পাদক ঃ সুলেমান হোসেন রুবেল

সহ বার্তা সম্পাদক ঃ মোঃআমির হুসাইন 

প্রচার সম্পাদক ঃ ইদু খান

উপদেষ্টা পরিষদ ঃ মোঃশহিদুল্লাহ,আবাব মিয়া, হারুন মিয়া, মুজিবুর রহমান তোতা, মোছাব্বির হোসেন জুনেদ, জিহাদুল হক জিহাদ, সাব্বির খান, মাওঃ আকবর আলী, মমতাজুল কোরেশি, শেখ গোলাপ মিয়া, নিজাম উদ্দিন।

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার এর তথ্য মন্ত্রণালয়ের বিধি মোতাবেক নিবন্ধনের জন্য আবেদিত।
দৈনিক জনতার কণ্ঠ সম্পাদক ও প্রকাশক কর্তৃক .. থেকে প্রকাশিত।
%d bloggers like this: